ইসলামের দাওয়াত

মাওলানা মুহাম্মাদ কালীম সিদ্দিকী ।। পৃথিবীতে আসার পর একজন মানুষের জন্য যে সত্যকে জানা ও মানা জরুরি এবং যা তার সবচে বড় দায়িত্ব, ভালোবাসাপূর্ণ সে কথাই আমি আপনাকে শোনাতে চাই। জগতের সবচে বড় সত্য জগতের সবচে বড় সত্য হলো – এর একজন মালিক আছেন। তিনি সবকিছুর স্রষ্টা। পরিচালক ও নিয়ন্ত্রক।বিস্তারিত

রচনা : মাওলানা মুহাম্মাদ কালীম সিদ্দিকীঅনুবাদ : দাওয়াতুল ইসলাম বাংলাদেশ, প্রকাশনা : দাওয়াহ প্রকাশনপ্রথম প্রকাশ : ২০১১, পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৩২, নির্ধারিত মূল্য : ১৫ টাকা “মানুষকে নরকের আগুন থেকে বাঁচানোর চেষ্টায় রত একজন মহান সাধক, মানবতার দরদী বন্ধু মাওলানা মুহাম্মাদ কালীম সিদ্দিকী আজ প্রেম ও ভালোবাসার একগুচ্ছ ফুল নিয়ে এগিয়েবিস্তারিত

ওয়াসী সুলাইমান নাদভী ।। একটা অবোধ শিশু আপনার সামনে। সে তার তুলতুলে খালি পা নিয়ে হেঁটে হেঁটে সোজা আগুনে পড়তে যাচ্ছে। তখন আপনি কী করবেন? আপনি তখনই ছুটে গিয়ে বাচ্চাটাকে একটানে কোলে তুলে নেবেন। আর আগুনের কাছ থেকে দূরে সরিয়ে এনে সীমাহীন তৃপ্তি অনুভব করবেন। এরকমই আপনার সামনে যদি কোনোবিস্তারিত

রচনা : মাওলানা মুহাম্মাদ কালীম সিদ্দিকীঅনুবাদ : মাওলানা মুজীবুর রহমান কাসেমী, সম্পাদনা : শাইখুল হাদীস মাওলানা নাজমুদ্দীনপ্রকাশনা : দাওয়াহ প্রকাশন, পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১২৮, নির্ধারিত মূল্য : ৭০ টাকা মাওলানা মুহাম্মাদ কালীম সিদ্দিকী একজন দা‘ঈ ইলাল্লাহ্, মানবতার দরদী বন্ধু। তাঁর হৃদয়নিংড়ানো, মহব্বতভরা আবেদন ও আহ্বান এই ‘আরমোগানে দাওয়াত’ বা দাওয়াতের উপহার।বিস্তারিত

মাওলানা মুহাম্মাদ কালীম সিদ্দিকী ।। দাওয়াতের উদ্দেশ্যে মুসলমানরা পৃথিবী চষে বেড়িয়েছে। ইতিহাস সাক্ষী। একজন প্রকৃত মুসলমান যখন ব্যবসার বাহানায় সফর করেছে তো দেশের পর দেশ কোনো অস্ত্রশস্ত্র ও যুদ্ধবিগ্রহ ছাড়া জয় করে নিয়েছে। আপনি হয়তো শুনে থাকবেন চেঙ্গিস ও তাতারীদের কথা। অত্যাচারী ও জালিমশাহী, যাদের রাজ্য সীমানায় মুসলমানদের প্রবেশ নিষিদ্ধবিস্তারিত

কায়কোবাদ ।। কে ওই শোনাল মোরে আযানের ধ্বনি!মর্মে মর্মে সেই সুর, বাজিল কি সুমধুরআকুল হইল প্রাণ, নাচিল ধমনী।কি মধুর আযানের ধ্বনি! আমি তো পাগল হয়ে সে মধুর তানে,কি যে এক আকর্ষণে, ছুটে যাই মুগ্ধমনেকি নিশীথে, কি দিবসে মসজিদের পানে। হৃদয়ের তারে তারে, প্রাণের শোণিত-ধারে,কি যে এক ঢেউ ওঠে ভক্তির তুফানে-কতবিস্তারিত

আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল ।। প্রথমে আমরা ইসলামের দিকে মানুষকে আহ্বান করার গুরুত্ব ও মর্যাদা সম্পর্কে সংক্ষেপে আলোচনা করার পর অমুসলিমদেরকে দাওয়াত দেয়ার পদ্ধতিগুলো নিয়ে আলোচনা করবো ইনশাআল্লাহ। মানুষকে ইসলামের দিকে দাওয়াত দেওয়ার গুরুত্ব ও মর্যাদা মহান আল্লাহ বলেন: ادْعُ إِلَى سَبِيلِ رَبِّكَ بِالْحِكْمَةِ وَالْمَوْعِظَةِ الْحَسَنَةِ وَجَادِلْهُمْ بِالَّتِي هِيَবিস্তারিত

মুফতি মুহাম্মাদ রফী উসমানী ।। আল্লাহ্‌র দিকে দাওয়াতের দু’টি পদ্ধতি রয়েছে : এক. কথার মাধ্যমে দুই. কাজের মাধ্যমে প্রথম পদ্ধতিটি দুই প্রকারের। এক. বয়ান-বক্তৃতা। দুই. লেখা। একটির সম্পর্ক যবানের সঙ্গে, আরেকটির সম্পর্ক কলমের সঙ্গে। সুতরাং দাওয়াতের কাজ যে প্রকারেই করা হোক না কেন, দা’ঈর ভাষা সাহিত্যের মানে উত্তীর্ণ হওয়া জরুরি।বিস্তারিত

মুনশী মোহাম্মদ মেহেরুল্লাহ ।। কর কর সবে সত্যধর্ম অন্বেষণঅসার অলীক ধর্ম দাও দাও বিসর্জন যে ধর্মে আশ্রয় নিলে,মোক্ষ হবে পরকালে, সে ধর্ম লভিতে ভাই হও সবে সযতনতাহলে অন্তিমে ‘পরমপদ’ হইবে দরশন।বিস্তারিত