কাজী নজরুল ইসলাম

কাজী নজরুল ইসলাম ।। শুরু করিলাম লয়ে নাম আল্লারকরুণা ও দয়া যাঁর অশেষ অপার। সকলি বিশ্বের স্বামী আল্লার মহিমাকরুণা কৃপার যাঁর নাই নাই সীমা। বিচার দিনের খোদা! কেবল তোমারিআরাধনা করি আর শক্তি ভিক্ষা করি। সরল সহজ পথে মোদেরে চালাওযাদেরে বিলাও দয়া সে পথ দেখাও। যারা অভিশপ্ত পথভ্রষ্ট এ জগতেচালায়ো নাবিস্তারিত

কাজী নজরুল ইসলাম ।। জাতের নামে বজ্জাতি সব জাত-জালিয়াৎ খেলছ জুয়া!ছুঁলেই তোর জাত যাবে? জাত ছেলের হাতের নয়তো মোয়া। হুঁকোর জল আর ভাতের হাঁড়ি – ভাব্‌লি এতেই জাতির জান,তাইত বেকুব, করলি তোরা এক জাতিকে একশ’-খান।এখন দেখিস ভারত-জোড়াপ’চে আছিস বাসি মড়া,মানুষ নাই আজ, আছে শুধু জাত-শেয়ালের হুক্কাহুয়া।জাতের নামে বজ্জাতি সব জাত-জালিয়াৎবিস্তারিত

কাজী নজরুল ইসলাম ।। যাত্রীরা রাত্তিরে হতে এল খেয়া পার,বজ্রেরি তূর্যে এ গর্জেছে কে আবার?প্রলয়েরি আহ্বান ধ্বনিল কে বিষাণে!ঝন্‌ঝা ও ঘন দেয়া স্বনিল রে ঈশানে! নাচে পাপ-সিন্ধুতে তুঙ্গ তরঙ্গ!মৃত্যুর মহানিশা রুদ্র উলঙ্গ!নিঃশেষে নিশাচর গ্রাসে মহাবিশ্বে,ত্রাসে কাঁপে তরণীর পাপী যত নিঃস্বে। তমসাবৃতা ঘোরা ‘কিয়ামত’ রাত্রি,খেয়া-পারে আশা নাই ডুবিল রে যাত্রী!দমকি দমকিবিস্তারিত

কাজী নজরুল ইসলাম ।। যে আল্লাহ্‌র কথা শোনেতাঁরই কথা শোনে লোকে।আল্লাহ্‌র নূর যে দেখেছেপথ পায় লোক তার আলোকে।। যে আপনার হাত দেয় আল্লাহ্‌য়জুল্‌ফিকারের তেজ সে পায়,যার চোখে আছে খোদার জ্যোতিরাত্রি পোহায় তাঁরই চোখে।। ভোগের তৃষ্ণা মিটেছে যারখোদার প্রেমের শিরনি পেয়ে,যায় বাদ্‌শা-নবাব গোলাম হ’য়েসেই ফকিরের কাছে যেয়ে। আসে সে-ই কওমের ইমামবিস্তারিত