মূর্তিপূজা

স্বামী দয়ানন্দ সরস্বতী ।। প্রশ্ন: মূর্তিপূজা কোত্থেকে এলো? উত্তর: মূর্তিপূজা বৈদিক হিন্দুধর্মবহির্ভূত চর্চা। স্বার্থান্বেষী মহল এটি জৈনদের কাছ থেকে এনে সংযোজন করেছে। প্রশ্ন: জৈনরা মূর্তিপূজার ধারণা কিভাবে পেয়েছে? উত্তর: নিজেদের মূর্খতা থেকে। প্রশ্ন: জৈনরা বলে- শান্ত, ধ্যানমগ্ন, উপবিষ্ট মূর্তি দর্শন করা হলে নিজের আত্মার শুভ পরিণাম সেরূপই হয়ে থাকে। উত্তর:বিস্তারিত

মুহসিনুদ্দীন মাহমূদ ।। নিজেকে কোনো বাস্তব বা কল্পিত ঊর্ধতন সত্ত্বার মুখাপেক্ষী জেনে পূজা-উপাসনা করার উদ্দেশ্যে তাঁর অবয়ব, ভাস্কর্য বা মূর্তি তৈরি করা কোনো কোনো ধর্মের বৈশিষ্ট্য। বর্তমান বিশ্বে প্রচলিত প্রধান প্রধান ধর্মগুলোর মধ্যে হিন্দুধর্ম অন্যতম। যদিও বাস্তব অনুসন্ধানে নিয়োজিত হলে দেখা যায়, হিন্দুধর্মের অনুসারী বলে পরিচিত মানুষের মধ্যে একেবারে ভিন্নবিস্তারিত

মুহসিনুদ্দীন মাহমূদ ।। মহামহিম আল্লাহ্ যুগে যুগে দেশে দেশে মানবমণ্ডলীর জন্য তাঁর পথনির্দেশিকা প্রেরণ করেছেন; নবী-রাসূলগণের মাধ্যমে, কিতাব সহকারে। বনী ইসরাঈল জাতির কাছে পাঠিয়েছেন তাঁর দুইজন রাসূল; হযরত মূসাকে (তাঁর ওপর আল্লাহর ঝরুক সালাম) পাঠিয়েছেন ‘তওরাত’ সহ, হযরত ঈসাকে (তাঁর ওপর আল্লাহর ঝরুক সালাম) পাঠিয়েছেন ‘ইঞ্জিল’ সহ। বনী ইসরাঈল হযরতবিস্তারিত

মুহসিনুদ্দীন মাহমূদ ।। বৌদ্ধধর্মের প্রবর্তন করেছেন সিদ্ধার্থ গৌতম; যিনি এখন গৌতম বুদ্ধ বা বুদ্ধ নামেই বেশি পরিচিত। খ্রিস্টপূর্ব ষষ্ঠ শতকে তাঁর শিক্ষা ও উপদেশকে কেন্দ্র করে এ ধর্মের উদ্ভব ঘটে। সিদ্ধার্থের জন্ম ৫৬৩ খ্রিস্টপূর্বাব্দে; নেপালের সীমান্তবর্তী রাজ্য কপিলাবস্তুতে। বুদ্ধ নিজেকে কখনো ঈশ্বর, অবতার বা উপাস্য রূপে উপস্থাপন করেননি। তিনি কোনোবিস্তারিত

মূর্তিপূজা ২

মুহসিনুদ্দীন মাহমূদ ।। বাংলাদেশ স্কুল টেক্সট বুক বোর্ড থেকে প্রকাশিত নবম-দশম শ্রেণির ‘হিন্দুধর্ম শিক্ষা’ বইতে মূর্তিপূজা নিয়ে দ্বন্দ্ব নিরসন করতে গিয়ে বলা হয়েছে, “যতদিন পর্যন্ত আপনার হৃদয়মন্দিরে সর্বভূতস্থিত ঈশ্বরকে সুপ্রতিষ্ঠিত করা না যায় ততদিন পর্যন্ত প্রতিমাদিতে ঈশ্বরের অর্চনা করতেই হবে।” অর্থাৎ কেউ যদি সামনে মূর্তি, ছবি ইত্যাদি কিছু না দেখেওবিস্তারিত

যাদের হাতে তৈরি হচ্ছে, কয়েকদিন পর তারাই উপাসনা করবেন? এরপরও কি এই মানুষেরা পুরস্কার আশা করবেন? প্রকৃত মালিকের কাছ থেকে?বিস্তারিত